police clearance application.webp

আপনি কি বিদেশে যাওয়ার জন্য পুলিশ ক্লিয়ারেন্স আবেদন করতে চাচ্ছেন? তাহলে জেনে নিন অনলাইনে পুলিশ ক্লিয়ারেন্স আবেদন করার নিয়ম ও প্রয়োজনীয় কাগজ সম্পর্কে বিস্তারিত।

বর্তমানে নতুন বিদেশে যেতে হলে পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেট বাধ্যতামূলকভাবে সংগ্রহ করতে হয়। বিদেশ যাওয়ার জন্য অনলাইনে পুলিশ ক্লিয়ারেন্স আবেদন করা যায়। এই পোস্টে জানবো- পুলিশ ক্লিয়ারেন্স কি, পুলিশ ক্লিয়ারেন্স কিভাবে পাবো, অনলাইনে পুলিশ ক্লিয়ারেন্স আবেদন করার নিয়ম ও অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ বিষয় সম্পর্কে।

প্রথমে, https://pcc.police.gov.bd/ এই লিংকে ভিজিট করে একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন করে আবেদন ফরম পূরণ ও চালান প্রতিশোধের মাধ্যমে পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেট পাবেন।

 

পুলিশ ক্লিয়ারেন্স কি?

সাধারণত কোন চাকরি কিংবা উচ্চশিক্ষার জন্য বিদেশে গমন করতে চাইলে দেশের সুনাগরিক হওয়ার প্রমাণপত্র হিসেবে পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেট সংগ্রহ করতে হয়। এছাড়াও দেশের অভ্যন্তরীণ কোন চাকরির প্রয়োজনেও জেলা এসবি শাখা থেকে পুলিশ ক্লিয়ারেন্স নিতে হয়।

কোন ব্যক্তির বিরুদ্ধে থানায় কোন ফৌজদারি মামলার অপরাধের রেকর্ড নেই‌ – এই মর্মে প্রত্যয়ন হিসেবে পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেট প্রদান করা হয়।

 

কোন অপরাধমূলক কর্মকাণ্ডে জড়িত ব্যক্তি পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সংগ্রহ করতে পারে না। এবং তাদেরকে পুলিশের পক্ষ থেকে এ সার্টিফিকেট প্রদান করা হয় না। এই সার্টিফিকেটের তথ্য সংগ্রহ করেই বিদেশে গমনের জন্য অনুমতি পাওয়া যায়।

 

পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেট কিভাবে পাবো?

আপনি কোন অপরাধমূলক কর্মকান্ডের সাথে জড়িত না থাকলে প্রয়োজনীয় ডকুমেন্টস সহ অনলাইনে পুলিশ ক্লিয়ারেন্স আবেদন ফরম পূরণ ও চালান পরিশোধ করে আবেদন করুন। তারপর আপনার স্থায়ী ঠিকানার থানায় আবেদনটি পর্যবেক্ষণের জন্য পাঠানো হবে।

পাসপোর্ট, জাতীয় পরিচয়পত্রসহ প্রয়োজনীয় কাগজপত্র নিয়ে থানায় উপস্থিত হলে পুলিশ কর্মকর্তা যাচাইয়ের পর সন্তোষজনক রিপোর্ট প্রদান করলে পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেট পাবেন।

পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সম্পন্ন হলে নিজ জেলার ডিএমপির সদর দফতরে পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেট দেয়া হয়।

 

পুলিশ ক্লিয়ারেন্স আবেদন করতে কি কি কাগজপত্র লাগে ও‌ শর্তাবলী

পুলিশ ক্লিয়ারেন্স পেতে হলে নিম্নোক্ত কাগজপত্র গুলো এবং শর্তাবলী মানে প্রয়োজন-

  • অনলাইনে আবেদন করা
  • আবেদনকারীর কমপক্ষে তিন মাস মেয়াদ সম্পন্ন পাসপোর্ট থাকতে হবে।
  • আবেদনকারীর বাসস্থান নির্দিষ্ট স্থায়ী ঠিকানার জেলা পুলিশের আওতাধীন এলাকায় থাকতে হবে।
  • বিদেশে অবস্থানকার কোন বাংলাদেশী নাগরিক পুলিশ ক্লিয়ারেন্সের জন্য আবেদন করতে চাইলে, যে দেশ অবস্থানরত আছেন সে দেশে বাংলাদেশ দূতাবাস কর্তৃক পাসপোর্ট এর তথ্য পাতার সত্যায়িত কপিসহ আবেদনের সঙ্গে দাখিল করতে হবে।
  • বাংলাদেশের কোন চাকরি কিংবা অন্য কোন কাজে ব্যক্তিগত পুলিশ ক্লিয়ারেন্সের প্রয়োজন হলে জেলা/ সিটি এসবি শাখা থেকে সংগ্রহ করতে হবে।
  • বর্তমানে অপরাধমূলক কর্মকান্ডের সাথে জড়িত ব্যক্তিকে পুলিশ ক্লিয়ারেন্স প্রদান করা হয় না।
  • সোনালী ব্যাংকের যে কোন শাখা থেকে পেমেন্ট পরিশোধের চালানের কপি ও চালান কোড। বিকাশ, নগদ, রকেট এর মাধ্যমেও এই ফি পরিশোধ করা যায়।

 

অনলাইনে পুলিশ ক্লিয়ারেন্স আবেদন করার নিয়ম

বিদেশে যাওয়ার জন্য pcc.police.gov.bd সাইটে ভিজিট করে অনলাইনে পুলিশ ক্লিয়ারেন্সের আবেদন করতে হয়। তবে বাংলাদেশী কোন চাকরি পেতে বা অন্যান্য প্রয়োজনে পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সনদ দরকার হলে সংশ্লিষ্ট জেলা কিংবা সিটি এসবি শাখা থেকে সংগ্রহ করতে পারবেন।

 

বিদেশে যাওয়ার জন্য অনলাইনে পুলিশ ক্লিয়ারেন্স আবেদন করতে নিচের ধাপগুলো অনুসরণ করুন-

 

ধাপ-১: রেজিস্ট্রেশন

 

অনলাইনে পুলিশ ক্লিয়ারেন্স এর জন্য আবেদন করতে ভিজিট করুন- Police Clearance Registration এই লিংকে। তারপর ওয়েব সাইটে রেজিস্ট্রেশন করার জন্য একটি ফর্ম দেখতে পাবেন। এখানে সঠিক তথ্য পূরণ করে রেজিস্ট্রেশন করুন।

অনলাইনে পুলিশ কিয়ারেন্স আবেদন করার নিয়ম
অনলাইনে পুলিশ কিয়ারেন্স আবেদন করার নিয়ম

Name অপশনে আপনার পাসপোর্ট অনুসারে ইংরেজিতে নাম লিখুন। এক্ষেত্রে ইংরেজি বড় হাতের অক্ষরে লিখবেন। Email- অপশনে একটি সজল ইমেইল এড্রেস লিখুন (অপশনাল)। তারপর আপনার হাতে থাকা মোবাইল নম্বর ও জাতীয় পরিচয় পত্র নম্বর লিখুন।

আবেদনকারী শিশু কিংবা বিদেশি নাগরিক হলে, পাশে থাকা Foreign/ Child অপশনেটিক দিন। এবার আপনার একাউন্টের একটি পাসওয়ার্ড লিখুন ও পুনরায় নিচে কনফার্ম পাসওয়ার্ড লিখুন। সর্বশেষ ক্যাপচা (গাণিতিক সমস্যার সমাধান) পূরণ করে কন্টিনিউ করুন।

 

ধাপ-২: মোবাইল ভেরিফিকেশন

একাউন্ট রেজিস্ট্রেশনের জন্য যে মোবাইল নাম্বার প্রদান করেছিলেন তা থেকে একটি মেসেজ সেন্ড করে মোবাইল ভেরিফিকেশন করতে হবে। রেজিস্ট্রেশন থেকে Continue করার পর মেসেজের একটি কোড প্রদান করা হয়। মেসেজের কোডটি হলো- PCC AV 6154।

পুলিশ ক্লিয়ারেন্স মোবাইল ভেরিফিকেশন

 

পুলিশ ক্লিয়ারেন্স মোবাইল ভেরিফিকেশন

আপনার মোবাইলের মেসেজ অপশনে গিয়ে টাইপ করুন PCC<space>AV<space>6154. তারপর পাঠিয়ে দিন ২৬৯৬৯ নম্বরে। খেয়াল রাখবেন আপনি যে সিম থেকে মেসেজটি সেন্ড করবেন তা আপনার অ্যাকাউন্ট রেজিস্ট্রেশনের জন্য প্রদানকৃত সিম হতে হবে।

একাউন্টের মোবাইল ভেরিফিকেশন করার পর successfully verified এসএমএস আসবে। আপনার একাউন্টের ভেরিফিকেশন সম্পন্ন হলে মোবাইল নম্বর ও পাসওয়ার্ড দিয়ে Sign in করুন।

 

ধাপ-৩: পুলিশ ক্লিয়ারেন্সের উদ্দেশ্য

 

এবার পুলিশ ক্লিয়ারেন্স আবেদন করতে মেন্যুবার থেকে Apply অপশনে যান। প্রথমে আপনার পুলিশ ক্লিয়ারেন্স কেন প্রয়োজন তা নির্বাচন করতে হবে। এখানে দুটি অপশন পাবেন- Go abroad এবং Others। আপনি সিম্পলি Go abroad সিলেক্ট করবেন। Others হলে অনলাইনে আবেদন করা যায় না, লিখিত আবেদন করতে হয়।

পুলিশ ক্লিয়ারেন্সের উদ্দেশ্য

 

পুলিশ ক্লিয়ারেন্সের উদ্দেশ্য

নিচের Country of Travel – অপশন থেকে আপনি কোন দেশে যেতে চান তা সিলেক্ট করুন।

 

ধাপ-৪: পার্সোনাল ইনফরমেশন

 

এখানে আপনার পাসপোর্ট অনুসারে ব্যক্তিগত সকল তথ্য পূরণ করতে হবে। প্রথমেই, পাসপোর্টের তথ্য- পাসপোর্ট নম্বর, মেয়াদ, ইস্যুকারি দেশ ধাপে ধাপে পূরণ করুন। তারপর আবেদনকারীর তথ্য ও আবেদনকারীর পিতা মাতার তথ্যগুলো সঠিকভাবে লিখুন। সর্বশেষ আপনার একটি পাসপোর্ট সাইজের ছবি (সর্বোচ্চ ১৫০ KB সাইজ) আপলোড করুন। তারপর, Save & Next এ ক্লিক করুন।

পুলিশ ক্লিয়ারেন্স পার্সোনাল ইনফরমেশন

 

পুলিশ ক্লিয়ারেন্স পার্সোনাল ইনফরমেশন


ধাপ-৫: স্থায়ী ও জরুরী যোগাযোগের ঠিকানা

 

এখানে জরুরী প্রয়োজনে কোন ঠিকানায় যোগাযোগ করবে তা উল্লেখ করুন। Emergency Contact Address অপশনে পাসপোর্ট অনুযায়ী – জেলা, থানা, পোস্ট অফিস, পোস্ট কোড, গ্রামের তথ্য লিখন।

একইভাবে স্থায়ী ঠিকানার জন্য Permanent Contact Address অপশনে পাসপোর্ট অনুযায়ী সকল তথ্য পূরণ করুন।

পুলিশ ক্লিয়ারেন্স যোগাযোগের ঠিকানা

 

পুলিশ ক্লিয়ারেন্স যোগাযোগের ঠিকানা


ধাপ-৬: ডকুমেন্টস সংযোজন

 

এখানে আপনার পাসপোর্ট ও অন্যান্য প্রয়োজনীয় ডকুমেন্টস এর স্ক্যান কপি আপলোড করতে হবে। মূলত পুলিশ ক্লিয়ারেন্স আবেদন পাসপোর্টের সাথে জাতীয় পরিচয় পত্র/জন্ম নিবন্ধন আপলোড করতে হয়।

পুলিশ ক্লিয়ারেন্স ডকুমেন্টস সংযোজন

 

পুলিশ ক্লিয়ারেন্স ডকুমেন্টস সংযোজন

উপরের ছবির মতো যে ডকুমেন্ট আপলোড করতে চান তার পাশে থাকা- Add অপশনে ক্লিক করে পূর্বে স্ক্যান করে রাখা ছবি আপলোড করে দিন। তারপর Save & Continue তে ক্লিক করুন।

 

ধাপ-৭: রিভিউ এবং সাবমিট

 

এবার আপনার দেওয়া সকল তথ্য রিভিউ করার জন্য একসাথে দেখানো হবে। এখানে দেওয়া সকল তথ্য আপনার পাসপোর্ট অনুসারে সঠিক হয়েছে কিনা যাচাই করুন। পাশাপাশি কোন বানান ভুল থাকলে তা পুনরায় সংশোধন করে নিন। আবেদনপত্র সাবমিট করার পর পরবর্তীতে সংশোধন করার অপশন পাবেন না।

পুলিশ ক্লিয়ারেন্স আবেদন রিভিউ এবং সাবমিট

 

পুলিশ ক্লিয়ারেন্স আবেদন রিভিউ এবং সাবমিট

সকল তথ্য সঠিক হলে Final Submit আর বক্সে টিক দিন এবং Confirm- এ ক্লিক করে আবেদন সম্পন্ন করুন।

 

ধাপ-৮: পেমেন্ট পরিশোধ

 

পুলিশ ক্লিয়ারেন্স আবেদন সাবমিট করার পর পরবর্তী পেজে একটি কনফার্মেশন মেসেজ আসবে। এখান থেকে অফলাইনে চালান পরিশোধ, চালানের পেমেন্ট ভেরিফিকেশন সহজেই করা যায়।

তৎক্ষণাৎ পেমেন্ট ভেরিফিকেশন এর সুবিধা থাকায় এ-চালানের মাধ্যমে পেমেন্ট পরিশোধ করা সহজ এবং ভালো। অন্যদিকে অফলাইন চালালে এক কর্ম দিবস পর ভেরিফাই হয়।

পুলিশ ক্লিয়ারেন্স পেমেন্ট পদ্ধতি

 

 

পুলিশ ক্লিয়ারেন্স পেমেন্ট পদ্ধতি

চালানে পেমেন্ট পরিশোধ করার জন্য‌ 1 চিহ্নিত স্থানে Click here to pay লেখাতে ক্লিক করুন। তারপর, সোনালী ব্যাংকের অনলাইন পেমেন্ট গেটওয়ে গুলো ওপেন হবে। এখানে থাকবে সোনালী ব্যাংক একাউন্ট, ডেবিট/ক্রেডিট কার্ড এবং মোবাইল ব্যাংকিং সেবা- বিকাশ, নগদ, রকেট। আপনার কাছে সুবিধা জনক মাধ্যমটি বেছে নিয়ে পেমেন্ট করুন।

পুলিশ ক্লিয়ারেন্স আবেদন পেমেন্ট প্রক্রিয়া
পুলিশ ক্লিয়ারেন্স আবেদন পেমেন্ট প্রক্রিয়া

 

সঠিকভাবে পরিশোধের পর‌ আপনার পেমেন্ট সফল হয়েছে এরকম একটি কনফার্মেশন মেসেজ আসবে। তারপর চালান কপিটি ডাউনলোড করে PDF ফাইলে সংরক্ষণ করুন।

 

 

ধাপ-৯: চালান আপলোড

 

চালানের কপিটি আপলোড করার জন্য My Account মেন্যু থেকে Upload Challan অপশনে যান। এবার ব্যাংকের নাম, জেলা ও ব্রাঞ্চের নাম সিলেক্ট করুন। তারপর চালান প্রদানের তারিখ ও চালান নম্বর লিখে Check Challan বাটনে ক্লিক করুন।

পুলিশ ক্লিয়ারেন্স চালান আপলোড
পুলিশ ক্লিয়ারেন্স চালান আপলোড

 

চালান আপলোড হলে জমাকারীর নাম দেখাবে। তারপর পাশের Challan Upload অপশন থেকে সংরক্ষণ করা চালানের কপিটির PDF ফাইল আপলোড করে দিন।

শুধুমাত্র সোনালী ব্যাংকের পেমেন্ট সিস্টেমে চালান পরিশোধ করলে তাৎক্ষণিক ভেরিফিকেশন করা যায়। অন্যথায়, একদিন পর চালানো আপলোড করতে হয়।

 

পুলিশ ক্লিয়ারেন্স অনলাইন আবেদন ফরমের গুরুত্বপূর্ণ তথ্যাবলী

 

পুলিশ ক্লিয়ারেন্স আবেদন করতে অনলাইনে যে সব তথ্য পূরণ করা হয় সেগুলোর বিস্তারিত আলোচনা করা হলো-

  • Purpose- কি প্রয়োজনে পুলিশ ক্লিয়ারেন্স নিতে চাচ্ছেন। বিদেশ যাওয়ার জন্য Go abroad সিলেক্ট করুন।
  • Country of Travel- কোন দেশে যাওয়ার জন্য পুলিশ ক্লিয়ারেন্স চাচ্ছেন তা সিলেক্ট করুন।
  • Passport No- পাসপোর্টে থাকা A0****** নম্বরটি সঠিকভাবে লিখুন।
  • Issuing Country- কোন দেশ থেকে আপনাকে পাসপোর্ট প্রদান করা হয়েছে তা সিলেক্ট করতে হবে। এক্ষেত্রে অবশ্যই Bangladesh সিলেক্ট করুন।
  • Issue Date- আপনাকে কত তারিখে পাসপোর্ট প্রদান করা হয়েছে তা লিখুন। আপনার পাসপোর্টে Issue Date লেখা তারিখটি দেখতে পাবেন।
  • Issue Place- আপনি কোথা থেকে পাসপোর্ট সংগ্রহ করেছেন তা লিখুন। এক্ষেত্রে পাসপোর্টে উল্লেখ না থাকায় আপনার নিজ জেলার নাম লিখুন। অথবা বিদেশে অবস্থানরত বাংলাদেশী দূতাবাস থেকে সংগ্রহ করলে তার নাম লিখুন।
  • Expiry Date- আপনার পাসপোর্ট এর মেয়াদোত্তীর্ণের তারিখ লিখুন। এটি পাসপোর্ট এর প্রধান পেজেই থাকে।
  • Mobile/ Email- আপনার একটি সচল মোবাইল নাম্বার দিতে হবে। ইমেইলের ক্ষেত্রে একটি সচল ইমেইল দিতে পারেন, না দিলেও হয় (এটি অপশনাল)
  • NID- আপনার পাসপোর্ট এর সাথে মিল রেখে জাতীয় পরিচয়পত্র নম্বর দিন।
  • Full Name- পাসপোর্ট অনুসারে ইংরেজি বড় হাতের অক্ষরে আপনার সম্পূর্ণ নাম লিখুন। লেখায় কোন ভুল হলে পুলিশ ক্লিয়ারেন্স পাওয়া যায় না।
  • Father’s/Husband Name- পাসপোর্ট অনুসারে পিতা বা স্বামীর নাম লিখতে হবে। পিতার নাম দিলে Father এবং স্বামীর নাম দিলে Spouse সিলেক্ট করে নিবেন।
  • Mother’s Name- পুলিশ ক্লিয়ারেন্সের ক্ষেত্রে এটি অপশনাল। তবে মাতার নাম লেখার সময় অবশ্যই পাসপোর্ট অনুসারী লিখবেন।
  • Date of Birth- পাসপোর্ট অনুসারে জন্ম তারিখ নির্বাচন।
  • Salutation- এখানে আবেদনকারী সম্বোধন বা উপাধি দিবেন। পুরুষের ক্ষেত্রে Mr. এবং মহিলার ক্ষেত্রে Ms. দিন। অথবা কোনোটি না দিলে None সিলেক্ট করুন।
  • Photo- আপনার পাসপোর্ট সাইজের একটি ছবি স্ক্যান করে আপলোড করতে হবে। ছবির সাইজ সর্বোচ্চ ১৫০ কিলোবাইট এর মধ্যে রাখবেন।

 

উপরোক্ত নিয়ম অনুসারে পুলিশ ক্লিয়ারেন্স আবেদন এর অনলাইন ফর্মে তথ্যগুলো পূরণ করুন।

 

 

পুলিশ ক্লিয়ারেন্স চেক

পুলিশ ক্লিয়ারেন্স আবেদন করার পর তার অবস্থা যাচাই করতে https://pcc.police.gov.bd/ এই লিংকে ভিজিট করুন। তারপর আবেদন সাবমিট এর পর পাওয়া Reference No, Passport No প্রদান করে View Certificate বাটনে ক্লিক করলে আপনার পুলিশ ক্লিয়ারেন্সের বর্তমান অবস্থার তথ্য জানতে পারবেন।

 

পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেট কিভাবে সংগ্রহ করবো

পুলিশ ক্লিয়ারেন্স এর আবেদন করার পর স্থানীয় থানায় উপস্থিত হবার জন্য আপনার প্রদানকৃত নাম্বারে যোগাযোগ করা হবে। সেখানে সকল তথ্য যাচাই করার পর জেলা পুলিশের হেড অফিসে সন্তোষজনক রিপোর্ট প্রদান করা হবে।

রিপোর্ট প্রদানের পর জেলা পুলিশের প্রধান কার্যালয় থেকে তা সংগ্রহ করতে পারবেন।

 

পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেটের নমুনা

পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেট প্রদান করা হলে তা নিচের নমুনা চিত্রের মত দেখতে পাবেন-

পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেট

পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেটের নমুনা



পুলিশ ক্লিয়ারেন্স পেতে কতদিন সময় লাগে

পুলিশ ক্লিয়ারেন্স আবেদন করার পর তথ্যের কোন ভুল না থাকলে এবং আবেদনকারীর বিরুদ্ধে কোন আইনি কর্মকান্ডের মামলা না থাকলে ৭-১০ দিনের মধ্যে পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেট সংগ্রহ করা যায়।

তবে তদন্তের সময়ের উপরে পুলিশ ক্লিয়ারেন্স প্রাপ্তির সময় নির্ভর করে। আবেদন করার ৩ দিন পর স্থানীয় থানায় উপস্থিত হতে কল করা হয়। এক্ষেত্রে ৭ দিনের মধ্যেই সার্টিফিকেট পাওয়া যায়।

 

পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেট মেয়াদ কতদিন

পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেট সংগ্রহ করার পর এর মেয়াদ থাকে ৩ মাস বা ৯০ দিন। এর মধ্যেই বিদেশ গমনেচ্ছুক ব্যক্তিকে বিদেশে যেতে হবে। ৩ মাস মেয়াদ অতিক্রান্ত হয়ে গেলে পুনরায় পুলিশ ক্লিয়ারেন্সের জন্য আবেদন করতে হবে।

 

পুলিশ ক্লিয়ারেন্স করতে কত টাকা লাগে

সরকারিভাবে পুলিশ ক্লিয়ারেন্সের ফি ৫০০ টাকা চালান প্রদান করতে হয়। বিকাশ বা ব্যাংক একাউন্টের মাধ্যমে আপনি এই প্রদান করতে পারবেন।

কোন আইটি সার্ভিস প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান থেকে পুলিশ ক্লিয়ারেন্স আবেদন করলে সে ক্ষেত্রে তাদের সার্ভিস ফি সহ মোট ৬০০-৭০০ টাকা নিতে পারে।

 

পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সম্পর্কিত যেকোন সমস্যায় হেল্প

  • ১.পুলিশ হেডকোয়ার্টার্স হেল্পলাইন নম্বর- ০১৭৫৫৬৬০১৭২
    ২.ডিএমপি ওয়ান স্টপ সার্ভিস- ০১৭১৩৩৯৮৬৮০
  • ৩. পুলিশ ক্লিয়ারেন্স আবেদন এর অবস্থা যাচাই ও বিভিন্ন সহায়তার জন্য পুলিশ স্পেশাল ব্রাঞ্চের মোবাইল অ্যাপ- Hello SB অ্যাপ ব্যবহার করতে পারেন।

 

 

পুলিশ ক্লিয়ারেন্স কতদিনে পাওয়া যায়?

অনলাইনে আবেদন সঠিক হলে তা স্থানীয় থানায় যাচাইয়ের পর ৭-১০ দিনের মধ্যেই পুলিশ ক্লিয়ারেন্স পাওয়া যায়।

পুলিশ ক্লিয়ারেন্সের মেয়াদ কতদিন থাকে?

পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সংগ্রহ করার পর ৩ মাস বা ৯০ দিন মেয়াদ থাকে। বিদেশ যাওয়ার পূর্বে মেয়াদোত্তীর্ণ হয়ে গেলে পুনরায় আবেদন করতে হবে।

পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেট কোথায় দেওয়া হয়?

পুলিশ ক্লিয়ারেন্স আবেদন করার পর জেলার ডিএমপির সদর দফতরে পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেট দেয়া হয়।

By BNG 24

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

You cannot copy content of this page